মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১
Logo
গণপরিবহন চালুর দাবিতে যশোর-খুলনায় শ্রমিকদের বিক্ষোভ

গণপরিবহন চালুর দাবিতে যশোর-খুলনায় শ্রমিকদের বিক্ষোভ

গণপরিবহন চালুর দাবিতে যশোরে ও খুলনায় বিক্ষোভ মিছিল ও সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। যশোর অফিস জানায় রোববার সকাল ১১টায় যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়ন ও যশোর জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্যোগে যশোর শহরের মণিহার বাস টার্মিনাল এলাকা ও চাঁচড়া চেকপোস্ট মোড়ে এ বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হয়।

 

মণিহার চত্বরে আজিজুল আলম মিন্টুর সভাপতিত্বে ও চাঁচড়া চেকপোস্ট মোড়ে বিশ্বনাথ ঘোষ বিষুর সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনা মহামারির কারণে সরকার লকডাউন ঘোষণা ও গণপরিবহন বন্ধ করে।

 

কিন্তু এরপর স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কেট, কল-কারখানা, বিভাগীয় ও জেলা শহরের যানবাহন চলাচলের অনুমতি দেয়। কিন্তু দূরপাল্লার গণপরিবহন অদ্যবধি বন্ধ রয়েছে। এতে করে কর্মহীন হয়ে মানবেতর জীবনযাপনে বাধ্য হচ্ছে শ্রমিকরা।

 

এ অবস্থায় শ্রমিকদের পরিবার পরিজন নিয়ে বেঁচে থাকতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চালুর দাবি জানান তারা। একইসাথে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত নগদ অর্থ ও ১০ টাকা কেজি দরে খাদ্য সহায়তা দেবার দাবি জানান নেতৃবৃন্দ। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আজিজুল আলম মিন্টু, সাধারণ সম্পাদক সেলিম রেজা মিঠু, সাংগঠনিক সম্পাদক হারুন অর রশিদ ফুলু, যশোর জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি বিশ্বনাথ ঘোষ বিষু, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, সহ সভাপতি শহিদুর রহমান সবুজ, সহ সম্পাদক অহিদুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক আজিজুল ইসলাম সেলিম। সভার আগে শ্রমিকরা একই দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন।

 

মিছিলটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। অপরদিকে খুলনা অফিস জানায়, গণপরিবহন চালুর দাবিতে খুলনায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার নগরের সোনাডাঙ্গা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে এ কর্মসূচি পালন করেন পরিবহন শ্রমিকরা।

 

শ্রমিক নেতারা বলেন, ‘লকডাউনে’ সবকিছু চালু থাকলেও গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। এতে পরিবহন শ্রমিকরা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। উপার্জনের পথ বন্ধ হয়ে তারা পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এতে অর্ধাহারে-অনাহারে থাকা শ্রমিকদের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।


এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন- খুলনা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. নুরুল ইসলাম বেবী, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বিপ্লব ও খুলনা মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক রনজিত কুমার ঘোষ প্রমুখ। কর্মসূচিতে শতশত চালক, হেলপার, সুপারভাইজার, টিকিট মাস্টার, কাউন্টার মাস্টার, টার্মিনাল লাইনম্যান, কলারম্যান-স্ট্যাটাররা অংশ নেন।

সংযুক্ত থাকুন