বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১
Logo
ঝিনাইদহে কলার হাটে কলা বিক্রির ধুম : দাম বাড়ায় খুশি কৃষক

ঝিনাইদহে কলার হাটে কলা বিক্রির ধুম : দাম বাড়ায় খুশি কৃষক

ঝিনাইদহে বেড়েছে সব জাতের কলার দাম। বাজারে অন্যান্য ফলের সরবরাহ কম থাকায় বেড়েছে দাম। ভালো দাম পেয়ে খুশি কলাচাষী ও ব্যবসায়ীরা। আসন্ন রমজানে কলার দাম আরও বাড়বে বলে আশা করছেন কৃষকরা।


ঝিনাইদহ জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্য মতে এ বছর জেলার সদর, শৈলকুপা, হরিণাকুন্ডু, কালীগঞ্জ, কোটচাঁদপুর ও মহেশপুর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের মাঠে মাঠে ৫ হাজার ৮’শ ৫ হেক্টর জমিতে কলার আবাদ করা হয়েছে।


এ বছর কলা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১ লাখ ৩৬ হাজার ৩’শ ৭২ মেট্টিকটন। প্রাকৃতিক দুর্যোগ না থাকা আর আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এ বছর কলার ভালো ফলন হয়েছে। সেই সাথে কলার দামও ভালো পাচ্ছে কৃষক।


রোববার সকালে ঝিনাইদহ শহরের পবহাটি কলা হাটে গিয়ে দেখা যায় প্রতি কাঁদি চাপা কলা প্রকার ভেদে ২’শ থেকে আড়াই’শ টাকা, সবরি কলা ৪’শ থেকে ৫’শ টাকা, সাগর কলা ১’শ ৮০ টাকা থেকে ২’শ ২০ টাকা ও ধুপছায়া কলা ৫’শ থেকে ৬’শ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।


দাম ভালো পেয়ে খুশি কৃষক। হাটে আসা সদর উপজেলার মুরারীদহ গ্রামের সিদ্দিকুর রহমান বলেন, আমি ২ বিগে (বিঘা) জমিতি কলা লাগাইচি। এবার দাম ভালো পাচ্চি। এখুন দাম বেশি পাওয়ার জন্যি একটু লাভ হচ্ছে। এতে আমরা খুশি। একই এলাকার কলাচাষী জলিল মুন্সী বলেন, করোনা আর আম্পানে আমাগের গতবার প্রচুর লস হইছিল। ঝড়ে তো একটা পুয়া (কলা গাছের চারা) থুয়ে যায়নি।


সিবার পুরোডা লস খাইচি। মাস খানিক আগে থেকে দাম ভালো পাচ্চি। একুন যে লাভ হচ্চে তাতে গতবারের লুকসান না উটলিও একটু পুষাতি পারবো। শৈলকুপার উপজেলার ভাটই গ্রামের কলাচাষী বাবর আলী বলেন, কলার দাম একুন ভালো। আর কয়দিন পর রুজা আসছে। রুজার ভিতর কলার দাম আরও হবে। আশা করে আছি যাতে কলার দাম ভালো পাই।


তিনি আরও বলেন, কলা মনে করেন ১ বছরের ফসল। ১ বিঘে জমিতি সাড়ে ৩’শ থেকে ৪’শ কলাগাছ লাগানো যায়। সার-মাটি, সেচ, জন খরচ দিয়ে মোটামুটি ৩০ থেকে ৩৫ হাজার টাকা খরচ হয়। একুন যে দাম যাচ্ছে সে অনুযায়ী ৭০ হাজার টাকা কলা বিক্রি করতি পারবো। তাতে আমাগের ৩০/৩৫ হাজার টাকা লাভ হচ্চে।


এ ব্যাপারে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য) মোশাররফ হোসেন বলেন, এ বছর প্রাকৃতিক কোন দুর্যোগ নেই। যে কারণে কলাচাষীরা ফলন ভালো পাচ্ছে। বাজারে কলার চাহিদা বেশি থাকায় দামও ভালো পাচ্ছে। কলাচাষে কৃষকদের উদ্বুর্দ্ধ করার জন্য প্রযুক্তিগত সহযোগিতা ও বালাই ব্যবস্থাপনায় প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

সংযুক্ত থাকুন