সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১
Logo
নড়াইলে লক্ষ্মী ভান্ডার সমিতির নামে লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ

নড়াইলে লক্ষ্মী ভান্ডার সমিতির নামে লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়নের মাউলি গ্রামে লক্ষ্মী ভান্ডার সমিতির নাম করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বিউটি রানী।

 

এই প্রতিষ্ঠিানটি দীর্ঘ এক বছর যাবত মানব কল্যানে কাজ করে যাচ্ছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য আর্সেনিকমুক্ত গভীর নলকূপ স্থাপন এবং বৃক্ষরোপন। এই প্রতিষ্ঠানটি ২০১৯ সালে প্রতিষ্ঠা লাভ করে। বর্তমানে ৪১ জন সদস্য নিয়ে এই সমিতিটি গঠিত। এই সমিতির অধিকাংশ সদস্যই প্রবাসী।

 

তারা সকলেই মানব কল্যানের জন্য প্রচুর অর্থ দিয়ে থাকেন। যে গভীর নলকূপ গুলো স্থাপন করা হচ্ছে সেগুলো খুবই স্বল্প মূল্যে প্রদান করা হয়। নলকূপ গ্রাহক মোঃ মিকাইল মোল্যা, রাজ্জাক হোসেন, হিমু খান, মোশারেফ খান, আলমগীর গাজী (টুকু মাষ্টার) তাদের সঙ্গে কথা হলে তারা বলেন, আমরা অতি অল্প মূল্যে এই নলকূপগুলো পেয়েছি যা আমরা কখনো কল্পনা করতে পারিনি।

 

ভুক্তভোগী লিয়াকত বিশ্বাস লক্ষ্মীপাশা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াছমিন ইতি বলেন, বিউটি রানী ও ইমরান কে আমরা প্রায় এক লাখ টাকার উপর দিয়েছি সে লক্ষী ভান্ডারের সদস্যের কথা বলে গভীর নলকূপ প্রদান করবে বলে টাকা নেয়। কিন্তু ভুক্তভোগী লিয়াকত বিশ্বাস বলেন, বিউটি রানী আমাকে কোন টাকা ফেরত দেয়নি সে মিথ্যা কথা বলেছে।

 

ভুক্তভোগীরা আরও বলেন, বিউটি রানী বলেন এই প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মকর্তা আমি। বিউটি রানীর সঙ্গে সাংবাদিকদের মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, আপনারা কেন আমাকে বিরক্ত করছেন। আমি কলের টাকা নিয়েছিলাম তা ফেরত দিয়েছি।

 

তাতে আপনাদের কি, আপনারা সাংবাদিকরা কেন আমাকে জালাচ্ছেন? আপনারা কি পেয়েছেন? সমিতির সভাপতি সম্্রাট কুমার ঘোষের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, মানব সেবাই আমাদের সমিতির মূল লক্ষ্য। সেকারনে এমপি মহোদয়ের গ্রীণ নড়াইল গড়ার লক্ষ্যে বৃক্ষরোপন ও আসের্নিকমুক্ত সুপেয় পানির জন্য এই পরিকল্পনা গ্রহন করেছি।

 

ইতিমধ্যে আমরা প্রায় একশ টির মত গভীর নলকূপ স্থাপন করেছি আগামীতে আমাদের এই কর্মসূচী অব্যাহত থাকবে। অতিব দুঃখের বিষয় একটি কুচক্রী মহল আমাদের এই প্রতিষ্ঠানটিকে ধ্বংস করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে।

 

তার মধ্যে বিউটি রাণী গ্রাম রায়পাশা ও ইমরান চৌধুরী বিভিন্ন মহল থেকে লক্ষ্মী ভান্ডার সমিতির নাম করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। সর্বশেষ সভাপতি স¤্রাট ঘোষ বলেন, আমরা এই প্রতারক চক্রের হাত থেকে রেহায় পেয়ে প্রতিষ্ঠানটিকে সুন্দর ভাবে পরিচালনা করে মানব সেবা অব্যাহত রাখতে চাই।

সংযুক্ত থাকুন