শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০
Logo
বর্ণিল সাজে ভৈরব সেতু আজ উদ্বোধন করবেন : প্রধানমন্ত্রী

বর্ণিল সাজে ভৈরব সেতু আজ উদ্বোধন করবেন : প্রধানমন্ত্রী

দক্ষিণাঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থায় নবদিগন্তের উম্মোচন

যশোরের শিল্প-বাণিজ্য ও বন্দর নগর নওয়াপাড়ার বুক চিরে অভয়নগর উপজেলাকে দুইভাগে বিভক্ত করে বয়ে যাওয়া ভৈরব নদীর উপর নির্মিত অভয়নগরবাসীসহ দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের স্বপ্নের ভৈরব সেতুর উদ্বোধন আজ রবিবার। আজ রবিবার সকাল সাড়ে দশটায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সেতুটির শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করবেন। আর এ কারনে স্থানীয় প্রকৌশল বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসন সেতুটিকে সাজিয়েছে বর্ণিল সাজে। লাল-নীল-হলুদসহ নানা রঙ্গের কাগজে ও রঙ্গিন ফিতায় সেতুটিকে সুন্দরভাবে সাজানো হয়েছে। সেতুটি উদ্বোধনের ফলে অভয়নগরের চারটি ইউনিয়নের সাথে শিল্প-বাণিজ্য ও বন্দর নগর নওয়াপাড়ার সরাসরি সংযোগ স্থাপিত হওয়ার পাশাপাশি নদী বন্দরের বিস্তৃতি বহুগুনে বেড়ে যাবে বলে প্রথ্যাশা স্থানীয়দের। এছাড়া ভৈরব সেতুর উদ্বোধনের ফলে দক্ষিণাঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থায় এক নতুন দিগন্ত উম্মচিত হবে। এ সেতু উদ্বোধনের ফলে যশোর-খুলনা মহাসড়কের সাথে নড়াইলের কালিয়ার সরাসরি সংযোগ স্থাপন হবে। সেই সাথে গোপালগঞ্জ-টুঙ্গিপাড়া, নড়াইল ও অভয়নগর একসূত্রে গ্রথিত হবে। অপরদিকে বৃহৎ এ অঞ্চলের সাথে বেনাপোল স্থল বন্দরের সরাসরি সংযোগ স্থাপিত হবে। সেই সাথে শিল্প ও ব্যবসা-বাণিজ্যের বিস্তার ঘটবে। স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের আমন্ত্রণপত্রে জানানো হয়েছে, “যশোর জেলার অভয়নগর উপজেলায় যশোর-খুলনা মহাসড়কের ভাঙ্গাগেট থেকে আমতলা জিসি সড়কে ভৈরব নদীর ওপর ৭০২.৫৫ মিটার দীর্ঘ সেতু” গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আজ রবিবার উদ্বোধন করবেন। এসময় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম এমপি উক্ত অনুষ্ঠানে কেবিনেট ডিভিশন প্রান্তে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে সংযুক্ত থাকবেন। অপরদিকে স্থানীয়ভাবে ভৈরব সেতুতে একটি উদ্বোধনী মঞ্চ তৈরী করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর উদ্বোধনী মঞ্চ থেকে সেতুটির ওপর দিয়ে সব ধরণের যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন অভয়নগর উপজেলা প্রকৌশল বিভাগ। এছাড়া এদিন সকালে যশোরের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সে সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সামাজিক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা যুক্ত থাকবেন বলে জানাগেছে। উল্লেখ্য, যশোরের অভয়নগর উপজেলার ভৈরব নদীর উপর ৯২ কোটি ৭৩ লাখ ৪৪ হাজার ৫৯১ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে অভয়নগরবাসীর বহুপ্রত্যাশিত স্বপ্নের এ ভৈরব সেতু। ১৫টি পিলারের কলামের ওপর দাঁড়িয়ে রয়েছে ৭০২.৫৫ মিটার দৈর্ঘ্য এবং ৮.১ মিটার প্রস্থ সেতুটি। ২০১৫ সালের জুন মাস থেকে শুরু হয় এ সেতুটির নির্মাণকাজ। ম্যাক্স র‌্যাংকিং জয়েন্ট ভেঞ্চার নামক প্রতিষ্ঠানটি এ সেতুটির নির্মাণকাজ সম্পন্ন করে।

সংযুক্ত থাকুন