মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১
Logo
বেপরোয়া সুন্দরবনের হরিণ শিকারীরা : নিধন হচ্ছে হরিণ

বেপরোয়া সুন্দরবনের হরিণ শিকারীরা : নিধন হচ্ছে হরিণ

তিন দিনে ৪টি মাথা ও ১শ’৯ কেজি হরিণের মাংস উদ্ধার : ৫ শিকারী আটক

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে চোরা শিকারীরা। অব্যাহত রয়েছে হরিণ শিকার। বাগেরহাটে মাত্র তিন দিনে ৪টি মাথাসহ ১০৯ কেজি হরিণের মাংস ও ৫ জন চোরা শিকারীকে আটক করা হয়েছে। সোমবার রাতে বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার বগুড়া ব্রীজের কাছ থেকে ৩টি মাথা ও ৪২ কেজি হরিণের মাংসসহ বাপ-বেটাকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।


আটক দুই চোরা শিকারী হলেন, বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার গোবিনাথপুর গ্রামের জুমাতুল্লা শেখের ছেলে আব্দুর রহমান শেখ (৫২) ও আব্দুর রহমান শেখের ছেলে মোস্তাকিন শেখ (২৭)।


বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাফিন মাহমুদ দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিং কালে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাগেরহাট ডিবি পুলিশের ওসি সুরেশ চন্দ্র হালদার ও এসআই গাজী ইকবালের নেতৃত্বে সোমবার রাতে বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার বগুড়া ব্রীজের কাছে অভিযান চালিয়ে ৩টি মাথাসহ ৪২ কেজি হরিণের মাংসসহ সুন্দরবনের চোরা শিকারী আব্দুর রহমান শেখ ও মোস্তাকিন শেখকে আটক করা হয়। আটক দুই চোরা শিকারীর নামে রামপাল থানায় মামলা দায়ের করা হবে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।


এরআগে রবিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টায় বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার পূর্ব সুন্দরবন সংলগ্ন রসুলপুর বেড়িবাঁধের কাছে দাসের ভারানি এলাকা থেকে ২০ কেজি হরিণের মাংসসহ মিলন মোড়ল (৩৫) নামের এক চোরা শিকারিকে আটক করেছে বনরক্ষীরা। শনিবার রাতে বাগেরহাটের মোংলার দিগরাজ বাজার এলাকা থেকে ৪৭ কেজি মাংস ও একটি হরিণের মাথাসহ ৩ চোরা শিকারীকে আটক করে মোংলা পশ্চিম কোস্টগার্ড। এছাড়া প্রায় প্রতিদিনই হরিণের মাংসসহ আটক হচ্ছে চোরা শিকারীরা। তথাপি কোনভাবেই যেন হরিণ শিকার নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না।

সংযুক্ত থাকুন