সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১
Logo
সাংবাদিক জগতের একজন দিকপালের চির বিদায়

সাংবাদিক জগতের একজন দিকপালের চির বিদায়

চিরতরে না ফেরার দেশে চলে গেছেন দক্ষিণবঙ্গের এক অকুতোভয় সাংবাদিক, সাংবাদিক সমাজের একজন সাহসি দিকপাল দৈনিক নওয়াপাড়ার প্রকাশক-সম্পাদক ও নওয়াপাড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আসলাম হোসেন (৬৫)।(ইন্না........রাজিউন)।


দীর্ঘদিন ফুসফুস জনিত জটিলতায় ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রবিবার ভোর সাড়ে চারটায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন প্রতিথযশা এ সাংবাদিক।


রোববার সন্ধ্যা ৭ টায় মরহুম সাংবাদিক ও নওয়াপাড়া বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আসলাম হোসেনের নিজ গ্রামের বাড়ি অভয়নগর উপজেলার শংকরপাশা গ্রামের শংকরপাশা নূরানী মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে তৃতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়।


সেখানে মায়ের পায়ের কাছে চীরনিদ্রায় শায়িত হন সংবাদপত্র জগতের এ উজ্জ্বল নক্ষত্র।


এর আগে সাংবাদিকদের অভিভাবক আসলাম হোসেনের প্রথম জানাজা ঢাকা ধানমন্ডীতে তার নিজ বাসভবনের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। এবং দ্বিতীয় জানাজা বাদ মাগরিব ঐতিহ্যবাহী নওয়াপাড়া পীরবাড়ি মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়। দ্বিতীয় জানাজা নামাজে ইমামতি করেন নওয়াপাড়া পীরবাড়ি মাদ্রাসার প্রধান মুফতি মাওলানা তৈয়েব সাহেব।


এ সময় নওয়াপাড়ার গদ্দিনশীন পীর আলহাজ্ব হাফেজ আব্দুল্লাহ বোখারী উপস্থিত ছিলেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অভয়নগর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র আলহাজ্ব এনামুল হক বাবুল, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর চেয়ারম্যান সরদার অলিয়ার রহমান, অভয়নগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহ্ ফরিদ জাহাঙ্গীর, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাজমুল হুসেইন খাঁন, অভয়নগর থানার ওসি তাজুল ইসলাম, দৈনিক গ্রামের কাগজ পত্রিকার প্রকাশক সম্পাদক মুবিনুল ইসলাম মুবিন, বিএনপির খুলনা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সানা আব্দুল মান্নান, জেলা পরিষদের সদস্য শাহ্ মুরাদ আহম্মেদ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) কে এম রফিকুল ইসলাম, পৌর আ’লীগনেতা জাহাঙ্গীর আলম, নওয়াপাড়া মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর প্যানেল মেয়র রাজঘাট শিল্পাঞ্চল শাখা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক রবিন অধিকারী ব্যাচা, দৈনিক নওয়াপাড়ার উপদেষ্টা সম্পাদক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব নাজমুল হক খোকন, বিএফইউজের খুলনা বিভাগীয় যুগ্ম মহাসচিব সাকিরুল কবীর রিটন, ব্যবসায়ী রেজাউল হোসেন বিশ্বাস, নওয়াপাড়া প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নজরুল ইসলাম মল্লিক, সাধারণ সম্পাদক মোজাফ্ফার আহমেদ, নওয়াপাড়া সরকারী মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ রবিউল হাসান, ফুলতলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান রাজা, বসুন্দিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি ফারাজী মতিয়ার রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজী গোলাম হায়দার ডাবলু, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি আবু নঈম মোড়ল, অধ্যক্ষ আব্দুল লতিফ, অধ্যক্ষ খায়রুল বাশার, নওয়াপাড়া মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধাণ শিক্ষক আলমগীর হোসেন, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ফারুক হোসেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শাহ্ মুকিত জিলানী, গাজী মতিয়ার রহমান, পৌর কাউন্সিলর আব্দুল গফফার বিশ্বাস, শাহ্ মোহাম্মদ জোবায়ের, জাকির হোসেন, আলহাজ্ব মিজানুর রহমান, অভয়নগর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক তালিম হোসেন, যুগ্ম-আহবায়ক অর্জুন সেন, প্রসেনজিত দাস সনজিত, সাবেক যুবলীগনেতা আব্দুর রউফ মোল্যা, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নতা আসলাম বিশ্বাস, জাহাঙ্গীর বিশ্বাস, লুৎফর রহমান বিশ্বাস, আ’লীগ নেতা সাইফার শেখ, হাফিজুর বিশ্বাস, ইউনূস শেখ, হাবু বিশ্বাস, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক শাহ্ খালিদ মামুন, ছাত্রলীগনেতা কাজী আহাদুর রহমান মামুন, সাব্বির আহম্মেদ শান্ত, থানা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করীম মোল্যা, বিএনপি নেতা মশিয়ার রহমান মশি, জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা আমীর ফয়সাল, স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা মোল্যা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপিনেতা আসাদুজ্জামান জনি, ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক মফিজ উদ্দিন, মোহাম্মদ আলী, বিষ্ণুপদ দত্ত, বিকাশ রায় কপিল, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফিরোজ আলম, ইউপি সদস্য জাকির হোসেন, ইকবাল হোসেন প্রমুখ।


এর আগে গতকাল রোববার বেলা তিনটায় মরদেহবাহী বিশেষ এ্যাম্বুলেন্সযোগে সত্যের ঝা-াবাহী, সাংবাদিক নেতা আসলাম হোসেনের মরদেহ নিজ বাড়ি নওয়াপাড়ার অংকুর ভবনের সামনে পৌছালে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়।

কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন সহকর্মী সাংবাদিকরা।


পরিবারের সদস্যদের আহাজারী, সহকর্মীদের গোঙানী আর ভালোবাসার শত সহস্হ্র মানুষের চোখের জলে নিস্তব্ধ হয়ে পড়ে গোটা অঞ্চল। সর্বত্র যেন কেবলই হাহাকার।

সংযুক্ত থাকুন