রবিবার, ১৩ জুন ২০২১
Logo
৭ বছর পর আবারও ইউরোপে পান রপ্তানি শুরু

৭ বছর পর আবারও ইউরোপে পান রপ্তানি শুরু

দীর্ঘ প্রায় সাত বছর (ছয় বছর আট মাস) পর আবারও বৈধভাবে ইউরোপে পান রপ্তানি শুরু হলো। প্রথম চালানে প্রায় এক টন পান যুক্তরাজ্যের উদ্দেশে রওনা হচ্ছে।

 

বুধবার দুপুরে শ্যামপুর সেন্ট্রাল প্যাকিং হাউজে পান রপ্তানির উদ্বোধন করেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আবদুর রাজ্জাক। এর মাধ্যমে পানের হারানো বাজার ফিরে পাওয়ার প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের।

 

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) কৃষিবিদ মো. আসাদুল্লাহর সভাপতিত্বে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন, বিএফভিএপিইএ’র সভাপতি টস এম জাহাঙ্গীর হোসেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য (ঢাকা-৪) আবু হোসেন বাবলা প্রমুখ।

 

এর আগে পানে ক্ষতিকর স্যালমোনেলা ব্যাকটেরিয়ার অস্তিত্ব পাওয়ায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) র‌্যাপিড অ্যালার্ট সিস্টেম ফর ফুড অ্যান্ড ফিড (আরএএসএফএফ) ২০১৪ সালের ২৯ জুলাই পান আমদানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। বাংলাদেশি পান আমদানির ক্ষেত্রে আরএএসএফএফ প্রথমে এক বছর নিষিদ্ধ করলেও পরে সময় বাড়ানো হয়। আরএএসএফএফ’র নিষেধাজ্ঞা আরোপের আগে ২০১৩-১৪ অর্থবছরে ইউরোপে ৩ কোটি ৯৩ লাখ ডলারের পান রপ্তানি হয়। যা টাকার পরিমাণে ৩৩৪ কোটি টাকা আর এর পরের বছর রপ্তানি হয় ১ কোটি ১৩ লাখ ডলারের পান।

 

ইউরোপের যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ইতালি, জার্মানিসহ বেশ কয়েকটি দেশে বাংলাদেশ থেকে পান রপ্তানি হয়। রপ্তানির বেশিরভাগই যায় যুক্তরাজ্যে। প্রবাসী বাংলাদেশিরাই এই পানের ক্রেতা। যাত্রীবাহী উড়োজাহাজে করে শাকসবজি এবং ফলমূলের মতো পানও রপ্তানি হয়।

সংযুক্ত থাকুন